গাংনী প্রতিনিধিঃ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার নওদাপাড়া গ্রামে জমি নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ছোট ভাই ইয়াদুল হক (৪৫)  ও ইয়াদুল হকের ছেলে হিমেল (১৭) মারাত্মক ভাবে যখম হয়ে কুষ্টিয়া  সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ।  স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে,  নওদাপাড়া গ্রামের মৃত জাহাবকস এর ছেলে প্রাবাস ফেরত ইয়াদুল হকের সাথে তার বড় ভাই ইমদাদুল হক (৫০) এর খাস জমি দখল নিয়ে পারিবারিক শত্রুতা ও বিরোধ চলছিল । গতকাল বৃহস্পতিবার (২৭ জুলাই) সকাল ৯ টায় পুর্ব পরিকল্পিত দেশিয় অস্ত্র ও জনবল নিয়ে ইমদাদুলের ছোট ভাই ইয়াদুল ছেলে হিমেলের উপর হামলা করেন । হামলা চলাকালে ইমদাদুল ধারালো রামদা দিয়ে ইয়াদুল ও হিমেলকে আক্রমন করেন সাথে ইমদাদুলের ছেলে মিলন হাসুয়া ও হাতুড়ী দিয়ে গনহারে তাদের আক্রামন করতে থাকেন । দুই পক্ষের এমন সংঘর্ষে উভয়ের পক্ষথেকেই কম বেশি আহত হন। পরে পিরতলা পুলিশ ফাঁড়ির ইঞ্চার্জ ঘটনাস্থানে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন । পরে পারিবারিক সদস্যের মাধ্যমে তাদের গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে অবস্থার অবনতি দেখে চিকিৎসকেরা  কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে রেফার্ড করেন । ইয়াদুললের স্ত্রী লিপিয়ারা খাতুন বলেন, তার স্বামী দির্ঘ ১০ বছর ধরে সৌদি আরব প্রবাসী । ইয়াদুলের অনুপস্থিতি ও লোকবল শুন্য থাকায় তার ভাসুর জোরপূর্বক বাড়ির সামনের ফাঁকা খাস জায়গায় দোকান পাসার করেন, অনেক বাধা দেবার পরেও তারা কর্নপাত করেনা নাই । পরে তার স্বামী প্রবাস থেকে ফেরত আসলে তাদের ভাইয়ের মাঝে ঝগড়া বিবাদ সৃষ্টি হয়ে । কথা কাটাটাটির এক পর্যায়ে মারামারির পর্যায়ে চলে যায় । পিরতলা ফাঁড়ির ইঞ্চার্জ মেহেরপুরবার্তা টোয়েন্টিফোর কে ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন,  জমি জায়গা নিয়ে তাদের পারিবারিক সমস্যার কারনে এই সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়েছে । বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে, তাদের অভিযোগের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *