কুষ্টিয়া প্রতিনিধিঃ  নিখোঁজের ৩ দিন পর জিকে ক্যানালের পানিতে ভেসে আসা বস্তাবন্দী অবস্থায় গলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ । কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম স্থানীয় জানান, আজ আনুমানিক দুপুর ১২ টার দিকে খবর আসে একটি বস্তাবন্দী কি ক্যানালে ভাসছে, খবর পেয়ে আমরা ছুটে আসি, এসে বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনেরাল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে ।

উদ্ধারকৃত লাশের পরিচয় নিশ্চিত করেছেন তাঁর ছোট ভাই রতন আহমেদ । তিনি বলেন এটি আমার একমাত্র বড় বোন মোছাঃ বিলকিস আক্তারের লাশ । গত তিনদিন থেকে তাঁকে খুজে পাওয়া যাচ্ছিলনা এবং এই বিষয়ে কুষ্টিয়া সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছিল । রতন বলেন  বিলকিস কুষ্টিয়া গোরস্থান মোড়ের ল্যাব এইড হাসপাতালে চাকুরী করতো সেখানে চাকুরিরত আরো দুজন জসিম ও উজ্জ্বল তাঁকে প্রায়ই উত্যক্ত করত । তাঁর ধরনা হত্যাকান্ডের সাথে তারা দু’জন জড়িত থাকতে পারে ।

জানাগছে, বিলকিস আক্তার কুষ্টিয়া উত্তর আমলাপাড়া পূর্ণবাবুর ঘাট এলাকার মোঃ রফিকুল ইসলাম ওরফে রফিকুলের স্ত্রী এবং কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানার পাটিকা বাড়ী ইউনিয়নের ওয়াপদার পার্শ্ববর্তী হযরত পাড়া গ্রামের রবিউল ইসলামের মেয়ে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *